Top Viewed: Android Apps | Bangla Sms | Mp3 Tag Editor | Song by Singer
Homeসৌন্দর্য ও ত্বকের যত্নস্বাস্থ্য ও চিকিৎসাভিটামিন-ই কেন দরকার

ভিটামিন-ই কেন দরকার

About Blogger (Total 3146 Blogs Written) 248 Views

administrator

This user may not Interested to share anything with others

No thumbnail

আপনি কি পর্যাপ্ত ভিটামিন-ই গ্রহণ করছেন?
ভিটামিন-ই শরীরের জন্য একটি প্রয়োজনীয় ভিটামিন। গবেষণায় দেখা গেছে ভিটামিন-ই গ্রহণ করলে হূদরোগ, স্ট্রোক, ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, চোখের ছানি, মাংসপেশির ব্যথা, ঠাণ্ডা লাগা ও আন্যান্য সংক্রমণের ঝুঁকি কমে যায়। অন্য এক গবেষণায় দেখা গেছে, ভিটামিন-ই গ্রহণে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেড়ে যায়। প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য দৈনিক এই ভিটামিনের অনুমোদিত মাত্রা হলো ৮-১০ আইইউ। সর্বাধিক লাভের জন্য আপনার দৈনিক ১০০-৪০০ আইইউ দরকার হতে পারে। বেশির ভাগ গবেষণায় দেখা গেছে, সর্বোচ্চ মাত্রা গ্রহণ করলে দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমানো সম্ভব হয়। তথ্যটি দিয়েছেন বোস্টনের টাফটস ইউনিভার্সিটির পুষ্টি বিভাগের অধ্যাপক জেফ ব্লামবার্গ। আপনি পর্যাপ্ত ভিটামিন-ই পাওয়ার জন্য নিচের পরামর্শ গ্রহণ করুন-
ভিটামিন-ই সমৃদ্ধ খাবার খান: বাদাম, খাদ্যশস্য, ভুট্টার ভ্রূণ এবং গাঢ় সবুজ শাক-সবজি ভিটামিন-ই এর চমত্কার উত্স। আপনার দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় এসব খাবার রাখুন।
ভিটামিন-ই সাপ্লিমেন্ট খান: খাদ্য থেকে ১০০-৪০০ আইইউ ভিটামিন-ই পাওয়া সম্ভব হয় না। ভিটামিন-ই এর অন্যতম ভালো উত্স জলপাই তেল। অথচ প্রতি চা চামচ জলপাই তেলে থাকে প্রায় ১.৭৪ আইইউ ভিটামিন-ই। তার মানে দৈনিক ১০০ আইইউ ভিটামিন-ই পেতে আপনাকে দৈনিক খেতে হবে ৩ কাপ জলপাই তেল। সুতরাং পর্যাপ্ত ভিটামিন-ই পেতে খাবারের পাশাপাশি আপনি
চিকিত্সকের পরামর্শ মতো ভিটামিন-ই সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে পারেন। সিরাপ, ক্যাপসুল বা ট্যাবলেট আকারে এই ভিটামিন পাওয়া যায়। তবে যেহেতু ভিটামিন-ই রক্তের জমাট বাঁধা কমিয়ে দেয় সুতরাং যাদের রক্তক্ষরণের অস্বাভাবিকতা রয়েছে তারা ভিটামিন-ই গ্রহণের আগে অবশ্যই চিকিত্সকের পরামর্শ গ্রহণ করবেন।
ভিটামিন-ই কোষের বুড়িয়ে যাওয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে
প্রাথমিক এক গবেষণায় দেখা গেছে যে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ভিটামিন-ই আমাদের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থায় বয়স সম্পর্কিত ব্যাপারটিতে প্রতিরোধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শরীরের স্বাভাবিক বিপাক ক্রিয়ার মাধ্যমে পরিবেশের বিভিন্ন উপকরণ যেমন হাইড্রোকার্বন
প্রভৃতির মাধ্যমে সৃষ্টি হয় অসংখ্য ফ্রি র্যাডিকেলস। এই ফ্রি র্যাডিকেলস বিভিন্ন রাসায়নিক ক্রিয়ার মাধ্যমে শরীরের কোষগুলোকে ধীরে ধীরে ধ্বংস করে দেয়। ভিটামিন-ই এর প্রধান কাজ হলো এসব ফ্রি র্যাডিকেলসকে দ্রুত গ্রহণ করে রাসায়নিক ক্রিয়া বন্ধ করে দেয়া, অর্থাত্ কোষগুলোকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করা। হার্ট অ্যাটাক কমাতে ভিটামিন-ই মধ্যবয়সী পুরুষ এবং মহিলা যারা ভিটামিন-ই গ্রহণ করে থাকেন, যেসব লোক গ্রহণ করেন না, তাদের চেয়ে হার্ট এ্যাটাক কম হয়। তথ্যটি জানা গেছে হার্ভার্ড স্কুলের পাবলিক হেলথ বিভাগের দ’টি পৃথক গবেষণা থেকে। দি নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিন প্রকাশিত তথ্যে দেখা গেছে প্রায় ৪০ হাজার পুরুষ যারা কমপক্ষে দুই বছর দৈনিক ন্যূনতম ১০০ আইইউ ভিটামিন-ই গ্রহণ করেছেন তাদের হার্ট অ্যাটাক কম হয়েছে শতকরা ৩৭ ভাগ। দ্ব্বিতীয় গবেষণাটি করা হয় মহিলাদের নিয়ে। ৮৭ হাজার মহিলাকে নিয়ে আট বছরের এক উদ্যোগ নেয়া হয়। সেখানে দেখা গেছে, দুই বছরের বেশি সময় দৈনিক ১০০ আইইউ ভিটামিন-ই গ্রহণে মহিলাদের হার্ট এ্যাটাক শতকরা ৪১ ভাগ কমেছে।

2 weeks ago (August 6, 2018) FavoriteLoadingAdd to favorites

Leave a Reply

You must be Logged in to post comment.

Related Posts

Help . Term & Rules. Report a Problem .
Forum Home
Contact
Back
Game
SMS
Apps
BDLove24.Com 2013-18

All Rights Reserved
BDLove24 Home